Skip to content

উইন্ডোজ-এর অটোমেটিক আপডেট হতে পারে বিপদ জনক!

অগাষ্ট 21, 2008

যারা এখনো উইন্ডোজ এর বিভিন্ন অপারেটিং সিস্টেম-এর পাইরেসি/লোকাল সফটওয়্যার ব্যবহার করেন এবং সাথে ইন্টারনেটও চলে, তারা লক্ষ করবেন যে আপনার সিস্টেম ট্রে -তে (নিচে ডান দিকে, ঘড়ির একটু বামে) উইন্ডোজ আপডেট হচ্ছে। আমরা জানি, আপডেট হওয়া অবশ্যই ভাল কিছু। কিন্তু, এই আপডেট এক সময় আপনাদের বিরাট সমস্যায় ফেলবে। আপডেট হতে হতে এক সময় তারা (মাইক্রসফট) আপনার সিস্টেম-এর (সিপিউ বা কেসিং বলা হয়) যাবতীয় খবর নিয়ে জানতে পারে যে, চলমান উইন্ডোজটি পাইরেটেড/লোকাল সফটওয়্যার। তারপর তারা আপনাকে জানায় যে এটা পাইরেটেড/লোকাল সফটওয়্যার, আপনি হয়তো ধোকা পেয়েছেন, দয়া করে আমাদের অথরাইজডদের কাছ থেকে নতুন কপি ক্রয় করুন। এর জন্য আমরা আপনাকে নূন্যতম মূল্য দিতে বলছি। বাংলাদেশে প্রায় ১৫,০০০ টাকা। এভাবে কয়েক দিন সতর্ক করবে। তারপরে দেখবেন আপনা প্রিয় অপারেটিং সফটওয়্যার আর আগের মত কাজ করছে না। হঠাৎ অপারেটিং সফটওয়্যার নস্ট হয়ে যায়। পরে আপনি যখন নতুন করে অপারেটিং সফটওয়্যার ইন্সটল করতে চাইবেন তা খুবই ঝামেলার হবে, যা বলে শেষ করা যাবে না। তারপরেও যদি আপডেট করতে চান, তাহলে এখান থেকে বাছাই করে করতে পারেন।

Advertisements
3 টি মন্তব্য leave one →
  1. সাইফুল ইসলাম permalink
    অগাষ্ট 26, 2008 7:32 পুর্বাহ্ন

    মাত্র একটি টিপস ! আরো লিখেন ভাই ।

  2. মুক্তবিহঙ্গ permalink
    নভেম্বর 25, 2009 3:16 অপরাহ্ন

    সাইফ, আপনার ধারনায় কিছুটা ভুল আছে।
    “আপডেট হতে হতে এক সময় তারা (মাইক্রসফট) আপনার সিস্টেম-এর (সিপিউ বা কেসিং বলা হয়) যাবতীয় খবর নিয়ে জানতে পারে যে, চলমান উইন্ডোজটি পাইরেটেড/লোকাল সফটওয়্যার।” এটা আসল তা নয়। মাইক্রোসফট তাদের নিয়মিত আপডেট গুলোর সাথে ২টি আপডেট সকলের কম্পিউটারের জন্য নির্ধারিত রাখে। অটোমেটিক আপডেটের সময় সেই আপডেট দুটো ডাউনলোড হয়, এবং এই আপডেট দুটো ইন্সটল করার সময় ব্যবহারকারীকে টার্মস এন্ড কন্ডশন দেখায়। ব্যবহারকারীরা সাধারনত টার্মস এন্ড কন্ডিশন নাপড়ে সরল বিশ্বাসে ইন্সটল দিয়ে ফেলে। তখন ঘটে বিপত্তি। নিম্নোক্ত আপডেট সমূহ এরিয়ে গেলেই আর কোন সমস্যা নেই…
    মাইক্রোসফট উইন্ডোজ ভ্যালিডেশন টুলস।
    মাইক্রোসফট উইন্ডোজ জেনুইন এডভান্টেজ ভ্যরিফিকেশন টুলস।

    এই আপডেট গুলোই আপনার কম্পিউটারে ইন্সটল হয়ে আপনার অপারেটিং সিস্টেম জেনুয়িন কিনা পরিক্ষা করে গুপ্তচরের মত। আর টার্মস এন্ড কন্ডিশন না পড়ে স্বাধারন ব্যবহারকারীরা এই সফটওয়্যার দুটোকে গুপ্তচরগিরির অনুমতি দিয়ে দেয়। যার ফলে কোন এন্টি স্পাইওয়্যার বা এন্টি ভাইরাস একে স্পাই ওয়্যার হিসেবে ডিটেক্ট করেনা।

    খেয়াল করে এই আপডেট দুটো কেউ ইন্সটল না করে এড়িয়ে গেলেই হয়। অটমেটিক আপডেট চালিয়ে যাওয়া যায়।

    • syeef permalink*
      নভেম্বর 26, 2009 1:44 পুর্বাহ্ন

      আপডেট দুটো ইন্সটল করার সময় ব্যবহারকারীকে টার্মস এন্ড কন্ডশন দেখায়। ব্যবহারকারীরা সাধারনত টার্মস এন্ড কন্ডিশন নাপড়ে সরল বিশ্বাসে ইন্সটল দিয়ে ফেলে।

      আমি জানি, আমি এই পোস্ট খানা লিখেছি সাধারন ইউজারদের কথা মাথায় রেখে। তারা ভাবে আপডেট মানে ভাল কিছু।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: